স্ট্রেচারে কাতরাচ্ছেন রোগী, ফেসবুকে মগ্ন ওয়ার্ড মাস্টার

image-39218-1523983296

টিবিটি সারাবিশ্বঃ প্রযুক্তির বিকাশ আমাদের জন্য যেমন সুফল বয়ে এনেছে। তেমনি এর বিড়ম্বনাও কম নয়। আর প্রযুক্তির এই বিকাশে সোশ্যাল মিডিয়া যুক্ত হওয়ায় আমরা যেন মোহগ্রস্ত হয়ে পড়েছি। পরিবার, সমাজ, মানবিক বোধগুলো যেন ক্রমেই লোপ পাচ্ছে। সম্প্রতি তারই একটি জ্বলন্ত প্রমাণ পাওয়া গেলো ভারতের জলপাইগুড়িতে।

স্ট্রেচারে কাতরাচ্ছিলেন এক রোগী। কিন্তু ওয়ার্ড মাস্টার মগ্ন ফেসবুকে। এইভাবেই কেটে গেলো দুই ঘণ্টা। আর তাতেই চরম পরিণতি। কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের বিরুদ্ধে। খবর জি নিউজের।

জলপাইগুড়ির রায়কত পাড়ার বাসিন্দা শম্ভু কুমার ঝা তার স্ত্রী মঞ্জু দেবীকে গেলো রবিবার পেটে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করেন। রোগীর রিপোর্ট দেখে চিকিৎসক তাকে দ্রুত ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) ভর্তির পরামর্শ দেন। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে, সেইসময় কর্তব্যরত ওয়ার্ড মাস্টার পুরো দুই ঘণ্টা মঞ্জু দেবীকে হাসপাতালে আটকে রাখেন। ওইসময় তিনি ফেসবুক নিয়ে মগ্ন ছিলেন।

ঘণ্টা দুয়েক পর অ্যাম্বুলেন্স এলে রোগীকে জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা রোগীকে মৃত ঘোষণা করেন। এরপরই ক্ষোভে ফেটে পড়ে রোগীর পরিবার। ওয়ার্ড মাস্টারের ঘরে শুরু হয় বিক্ষোভ। পরে জলপাইগুড়ির কোতোয়ালী থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। অভিযোগ দায়ের করা হলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয়া হবেও আশ্বাস দেন হাসপাতাল সুপারের।


*

*

Top