দু’বছরের মধ্যে প্রাথমিকে প্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক: জয়

204441joy1_kalerkantho_pic

টিবিটি জাতীয়: জনসংখ্যাকে সম্পদে রূপান্তরের লক্ষ্যে আগামী দুই শিক্ষাবর্ষের মধ্যে প্রাথমিক স্তরেই প্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার ঘোষণা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’র দ্বিতীয় দিনে মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি। উপদেষ্টা জানান, বিশ্ববাজারে শুধু স্বল্প মজুরির শ্রমিক নয়, প্রযুক্তি পণ্য ও সেবা রপ্তানিকারক দেশ হতে চায় বাংলাদেশ।

প্রাথমিক শিক্ষা সম্প্রসারণে গেল দুই দশকে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে বাংলাদেশ। ফল যে আসেনি তা নয়, ব্যাপকহারে ঝরে পড়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমিয়ে বিশ্বের বহু দেশের সামনে বাংলাদেশ এখন একটি অনুকরণীয় নাম। সেই প্রাথমিকেই এবার অন্যান্য পাঠ্যবইয়ের সঙ্গে শিশুদের তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন করে গড়ে তুলতে চায় সরকার।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চলমান ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’র দ্বিতীয় দিনে এমন পরিকল্পনার কথা জানান প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি জানান, ব্যাপক চাহিদার কথা মাথায় রেখে স্বল্পমূল্যে প্রযুক্তিপণ্য সরবরাহে দেশেই শিশুতোষ ট্যাব, প্রজেক্টর উৎপাদন শুরু করতে যাচ্ছে সরকার।

জয় বলেন, ‘প্রাথমিক পর্যায়ে শেখানো কিংবা হোমওয়ার্কগুলো ট্যাবের মাধ্যমে করা যেতে পারে। শিশুরা এগুলো খুব দ্রুত আয়ত্ত করতে পারে। আমরা চেষ্টা করছি, স্বল্পমূল্যের ট্যাব এবং কম্পিউটার দেশে তৈরি করতে। আগামী দুই শিক্ষাবর্ষেই এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্য আমাদের।’

বিশ্ববাজারে শুধুমাত্র স্বল্প মজুরির শ্রমিক নয়, প্রযুক্তি পণ্য ও সেবা রফতানি করবে বাংলাদেশ। ২০২৫ সালে দেশের ১০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন, অনলাইনেই মিলবে ৮০ শতাংশ সরকারি সেবা।

জয়ের কথায়, ‘আমরা চালকবিহীন গাড়ি আনতে যাচ্ছি। নিশ্চয়তা দিচ্ছি, আগামী সাত আট বছরে দেশের অধিকাংশ সরকারি সেবা অনলাইনেই পাওয়া যাবে। এখন সময় চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যেখানে বিশ্ব বাংলাদেশকে চিনবে প্রযুক্তি পণ্য রপ্তানিকারক হিসেবে। আমাদের শ্রমিকরাও আর স্বল্পমূল্যের থাকবে না।’

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সঞ্চালনায় মন্ত্রীপর্যায়ের সম্মেলনে তথ্য প্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতির প্রশংসা করেন কঙ্গো, ভুটান, মালদ্বীপ ও কম্বোডিয়া সরকারের শীর্ষ প্রতিনিধিরা।


*

*

Top