টাকা পাচার উন্নতির ‘সার্টিফিকেট’: অর্থমন্ত্রী

muhit_finance_minister_10019

স্টাফ রিপোর্টার: দেশ থেকে টাকা পাচারের ঘটনাকে উন্নতির ‘সার্টিফিকেট’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। একই সঙ্গে আগামীতে বিনিয়োগ বাড়ানোকে বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করেন তিনি।
মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের উন্নতি হয়েছে। টাকা বেড়েছে। সে কারণে পাচার হচ্ছে। এটা উন্নতির সার্টিফিকেট।’
শুক্রবার সন্ধ্যায় একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে ‘রাজস্ব ও বাজেট’ শীর্ষক টকশোতে তিনি এ কথা বলেন। এতে উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, পলিসি রিসার্স ইন্সটিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর ও এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ।
টাকা পাচার নিয়ে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে কাজী আকরাম বলেন, ‘কামাই বেড়েছে। তাই পাচারও বেড়েছে।’
তবে দ্বিমত পোষণ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘পানামা পেপার্সে প্রকাশিত তথ্যে বিশ্বব্যাপী তোলপাড় চলছে। রাষ্ট্র নেতারাও পদত্যাগ করছেন। সে হিসেবে দেশে কিছু হয়নি। আমাদের এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে হবে যাতে টাকা পাচার না হয়ে দেশেই বিনিয়োগ হয়।’
এ প্রসঙ্গে আহসান এইচ মনসুর বলেন, টাকা পাচার হয় মূলত দু’কারণে। একটি রাজনৈতিক অস্থিরতা। অপরটি আইনের সঠিক প্রয়োগ না হলে ও সুশাসনের অভাব থাকলে। এ সবের উন্নতি হলে টাকা পাচার কমে যাবে।
বগুড়া থেকে করা এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সস্তা সিগারেট স্বাস্থ্যের জন্য বেশি খারাপ। এটা প্রসারিত হচ্ছে। এবার স্লাবের ভিত্তিতে আর কর আদায় করা হবে না। বিশ্বের ৬টি দেশ ছাড়া আর কোথাও স্লাবের মাধ্যমে কর আদায় হয় না। বিড়ি দেশ থেকে বিদায় হয়েছে। এটাকে আগামী বাজেটে আর প্রশ্রয় দেয়া হবে না।
তিনি আরও বলেন, গত বছর ১৪ হাজার ২৯১ কোটি টাকা সিগারেট খাত থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে। নিু স্লাবের সিগারেট চোরাচালানের মাধ্যমে আসছে। স্লাব না থাকায় নিু স্লাবের সিগারেটের চোরাচালান কমবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।
আহসান এইচ মনসুর বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নিু স্লাবের সঙ্গে উচ্চ স্লাবের পার্থক্য দ্বিগুণ থাকে। কিন্তু বাংলাদেশে ৭ গুণেরও বেশি। এটা সমন্বয় করতে পারলে এ খাত থেকে রাজস্ব আদায় আরও বাড়বে।
কর্পোরেট ট্যাক্স প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, এক-দুটি খাতের কর্পোরেট ট্যাক্স ৪৫ শতাংশ রয়েছে। বাজারে (শেয়ার বাজার) গেলে কর হার আরও কমে। সেদিক দিয়ে কর্পোরেট ট্যাক্স কমানোর চিন্তাভাবনা নেই।
এ প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ট্যাক্স বেশি ধরলে পরিধি বাড়ে বলে মনে হয় না। সহনীয় মাত্রায় রাখলে কর আদায় বাড়বে।
বাজেটে শেয়ার বাজারের স্বার্থে কর্পোরেট কর কমানো, আইপিওতে ট্যাক্স সুবিধা দেয়াসহ কিছু প্রস্তাব দেন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পরিচালক রকিবুর রহমান। এ প্রশ্নে উত্তেজিত হয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘শেয়ারবাজার নিয়ে কথা বলতে চাই না। এখানে নিয়ম-কানুন কিছুই ছিল না। সরি টু সে, সব ফটকাবাজ শেয়ারবাজারে ঢুকেছে। আমি আইনকানুন করে দিয়েছি।’


2 Comments

  1. mehedi said:

    Ami mon e kori tk pasarer sathe ortho montri jorit because ak Jon artho montri hoye tini kivave ai kotha bolte parlen.podotak kora usit onar……
    How funny….

*

*

Top